নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় কি

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় কি

আসসালামু আলাইকুম, নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় কি বা নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাইলে আজকের পোস্ট টি শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং বাংলাদেশে অনেক জনপ্রিয় একটি ব্যাংকিং সিস্টেম। খুব দ্রুত তারা দেশের প্রতিটা অঞ্চলে পৌঁছে গেছে। এর প্রধান কারণ হচ্ছে তাদের সার্ভিস যথেষ্ট ভালো।

কিন্তু নগদ একাউন্ট ব্যবহার করতে গিয়ে অনেক সময় আমরা নিজেদের একাউন্টের পিন ভুলে যাই। পিন ভুলে গেলে আমরা সেই একাউন্ট আর ব্যবহার করতে পারিনা।

তো আজকের এই পোস্ট থেকে আপনারা এই নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়ে নিতে পারবেন। এছাড়াও এই নগদ একাউন্ট লক হলে করণীয় ও বলা হবে।

নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় কি

যেকোনো অ্যাকাউন্টের পিন অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এই পিন যদি ভুলে যান তাহলে অ্যাকাউন্ট টি অচল হয়ে পড়ে।

তো আপনার নগদ একাউন্টের পিন যদি ভুলে যান তাহলে আপনাকে এই পিন টি নতুন করে সেট করে নিতে হবে। কিভাবে নগদ একাউন্ট এর পিন রিসেট করবেন তার বিস্তারিত নিচে বলা হলো।

আরোও পড়ূনঃ নগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম | নগদে টাকা দেখার নিয়ম (সব পদ্ধতি)

পদ্ধতি ০১: ussd কোড ডায়াল করে

বন্ধুরা আপনারা জানলে অবাক হবেন যে, নগদেরে পিন ভুলে গেলে খুব সহজে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সেটি নিজে নিজে আবার ঠিক করে নিতে পারবেন।

কিভাবে ইউএসএসডি কোড ডায়াল করে নগদের পিন রিসেট করে নিবেন সেটা নিচে সুন্দরভাবে এক এক করে বলা হলো।

ধাপ ০১: প্রথমে আপনাকে মোবাইল ফোনের ডায়াল অপশন চলে যেতে হবে এবং সেখানে গিয়ে ডায়াল করতে হবে *১৬৭# লিখে।

ধাপ ০২: নগদের কোড ডায়াল করার পর আপনার সামনে বেশ কিছু অপশন দেখানো হবে এগুলো থেকে আপনি আপনার নগদ একাউন্টের যাবতীয় কার্যক্রম গুলো নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

এখান থেকে আপনাকে সর্বশেষ যে অপশন পিন রিসেট নামের অপশনটির ৮ নাম্বার লিখে সেন্ড করে দিতে হবে।

ধাপ ০৩: পিন রিসেট অপশনে যাওয়ার পর আপনার সামনে এখানে এখন দুইটি অপশন দেখানো হবে। একটি হচ্ছে ফরগেট পিন এবং আরেকটি হচ্ছে চেঞ্জ পিন।

যেহেতু আপনি আপনার পুরাতন পিন টি হারিয়ে ফেলেছেন এবং নতুন পিন রিসেট করতে চাচ্ছেন এই কারণে এখান থেকে এক নম্বর অপশন বা বাছাই করে সেন্ড করে দিতে হবে।

ধাপ ০৪: এক নম্বর অপশনটি লিখে সেন্ড করার পর আপনার সামনে এখন আপনার নগদ একাউন্ট এর আইডি নম্বর চাওয়া হবে।

অর্থাৎ যে ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে নগদ অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন সেই আইডি কার্ডের নম্বরটি এখানে বসিয়ে সেন্ড করে দেবেন।

যদি আপনি নগদ একাউন্ট খোলার সময় আইডি কার্ড সাবমিট করে না থাকেন তাহলে আপনার নগদের সিমটি যে আইডি কার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা ছিল সেই আইডি কার্ডের নম্বরটি বসাতে হবে।

ধাপ ০৫: আইডি কার্ডের নম্বর বসানোর পর আপনি এই নগদ একাউন্ট দিয়ে লাস্ট কবে এবং কি কি লেনদেন করেছিলেন সে সম্পর্কে কিছু ইনফরমেশন দেওয়া হবে।

এছাড়াও আপনার নগদের ব্যালেন্স ও জানতে চাইতে পারে। সবগুলো ইনফরমেশন দেওয়ার পরে আপনার এই ইনফো গুলো যাচাই-বাছাই করা হবে এবং আপনাকে একটি মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

যদি সমস্ত ইনফরমেশন ঠিক দিয়ে থাকেন তাহলে আবার নগদের কোড ডায়াল করে নতুন একটি পিন সেট করে নিতে পারবেন।

পদ্ধতি ০১: অ্যাপ দিয়ে নগদ এর পিন রিসেট

উপরে আপনাদেরকে কোড ডায়াল করে নগদ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। নিচে এখন অ্যাপ দিয়ে কিভাবে নগদ একাউন্টের পিন রিসেট করবেন সেটা বলা হবে।

ধাপ ০১: প্রথমে আপনার নগদ অ্যাপ্লিকেশনটি চালু করবেন এবং তারপরে এখানে নিচে দেখবেন আপনি “পিন ভুলে গিয়েছেন” নামের একটা অপশন পাবেন সেটাতে ক্লিক করবেন।

ধাপ ০২: সেখানে চলে গেলে নতুন একটি পেজ চালু হবে এবং এখানে দেখতে পারবেন আপনাকে কল করতে বলা হচ্ছে।

এরপর তাদেরকে কল দিবেন এবং তারা যে ইনফরমেশন গুলো আপনার থেকে চাইবে সেই ইনফরমেশন গুলো সঠিক ভাবে তাদেরকে প্রদান করবেন।

সমস্ত ইনফরমেশন সঠিকভাবে প্রদান করা হয়ে গেলে তারা আপনার নাম্বারে একটি ওটিপি কোড পাঠিয়ে দিবে। সেই ওটিপি কোড টি নিয়ে আপনার নগদ অ্যাপ এর এই জায়গায় বসিয়ে সাবমিট করতে হবে।

ওটিপি কোড সাবমিট করা হয়ে গেলে অটোমেটিক আপনার নগদ একাউন্টের পিন রিসেট করা হয়ে যাবে এবং আপনি নতুন পিন সেট করতে পারবেন খুব সহজে।

নগদ একাউন্ট লক হলে করনীয়

বিভিন্ন কারণে নগদ একাউন্ট লক হয়ে যেতে পারে। তবে আপনারা চাইলে কিন্তু খুব সহজেই আবার এই নগর অ্যাকাউন্টটি পুনরায় চালু করে নিতে পারবেন।

যদি ভুল পিন বারবার দেওয়ার ফলে আপনার নগদ একাউন্ট দিয়ে লক হয়ে যায়। তাহলে উপরে বলা নগদের পিন রিসেট করার নিয়ম অনুসরণ করে আপনার নতুন পিন সেট করে নিলেই আবার নগদ একাউন্টটি চালু হয়ে যাবে।

আর যদি অন্য কোন কারনে আপনার নগদ একাউন্ট লক না হয়ে যায়। তাহলে সরাসরি কাস্টমার কেয়ারে কল দিলে তারা যে ইনফরমেশন গুলো চাইবে সেগুলো তাদেরকে দিলে আপনার নগদ একাউন্ট পুনরায় চালু করে দেবে।

আবার যদি কোন বড় কারনে আপনার নগদ একাউন্ট লক হয়ে যায় তাহলে কিন্তু এভাবে কল দিয়ে কোন কাজ হবে না। তখন আপনার একাউন্ট টি ঠিক করার জন্য সরাসরি নিকটস্থ নগদের কাস্টমার এজেন্ট এর কাছে চলে যেতে হবে।

নগদের কাস্টমার কেয়ারে চলে যাওয়ার পর সমস্ত ডকুমেন্ট এবং প্রমান গুলো তাদেরকে দিলে আপনার একাউন্ট ঠিক করে দেওয়া হবে।

নগদ একাউন্টের পিন পরিবর্তনের নিয়ম

বিভিন্ন সময় আমাদের নগদ একাউন্ট এর পিন পরিবর্তন করার প্রয়োজন পড়ে। তো নিচে এখন আপনাদেরকে খুব সহজ পদ্ধতি ব্যবহার করে নগদ একাউন্টের পিন পরিবর্তনের নিয়মটি বলে দেবো।

✓ নগদ অ্যাপ দিয়ে

আপনারা কিন্তু এখন খুব সহজেই নগদ এপ্লিকেশন এর মাধ্যমে নগদের পিন পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। এর জন্য প্রথমে প্লে স্টোর থেকে নগদ অ্যাপ্লিকেশনটি ইন্সটল করে নিতে হবে তারপর সেখানে আপনার নগদ করে নিতে হবে ।

একাউন্টে লগইন করার পর নগদ অ্যাপ এর স্ক্রিনের ডান সাইডে একদম নিচের দিকে দেখবেন আমার নগদ নামে একটি অপশন আছে সেটাতে চলে যাবেন।

আমার নগদ অপশনে যাওয়ার পর ওপরের দিকে দেখবেন পিন পরিবর্তন নামের আরও একটি অপশন আছে তো আপনি সরাসরি সেই অপশনের মধ্যে চলে যাবেন।

পিন পরিবর্তন অপশনে ঢোকার পরে আপনার সামনে তিনটি বক্স চালু হবে। তো আপনি এই বক্সগুলো ব্যবহার করে খুব সহজে আপনার নগদের পিন পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

এখানে তিনটি বক্সের মধ্যে প্রথম বক্সে আপনার নগদের আগের যে পিন আছে সেটি বসাতে হবে। তারপরের বক্সে নতুন পিন এবং শেষ বক্সে আবার নতুন পিন টি বসিয়ে সাবমিট করে দিতে হবে।

এভাবে পিন গুলো বসানোর পর সঠিকভাবে সাবমিট করা হয়ে গেলে এক সেকেন্ড এর মধ্যে আপনার নগদ একাউন্ট এর আগের পিনটি ক্যান্সেল হয়ে নতুন পিন সেট হয়ে যাবে।

✓ নগদ ussd কোড ব্যবহার করে

সকলেই জানেন যে নগদ এর কোড হচ্ছে *১৬৭# . এই কোডটি ডায়াল করেও কিন্তু খুব সহজেই নগদ একাউন্ট এর পিন পরিবর্তন করে নেওয়া যায়।

এর জন্য সর্বপ্রথমে আপনার ফোনের ডায়াল অপশনে চলে যেতে হবে এবং নগদের কোডটি ডায়াল করতে হবে।

কোড ডায়াল করার পর একদম নিচের ৮ নম্বর অপশনটি বাছাই করে সেখানে আট লিখে তারপর সেন্ড বাটনে চেপে দিবেন।

এরপর আপনার সামনে দুটি অপশন চালু হবে এখান থেকে আপনি পিন চেঞ্জ নামের অপশন দুইটি যাচাই করে আবার সেন্ড বাটনে চেপে দিবেন।

তারপর আপনারা সামনে একটি বক্স খোলা হবে এখানে প্রথমে আপনার পুরাতন পিন টি দিয়ে দিতে হবে। তারপর আপনার নতুন পিন টি দিবেন এবং তারপর আবারও নতুন পিন দিয়ে সাবমিট করে দেবেন।

এই পদ্ধতি অবলম্বন করার পর খুব সহজেই আপনার নগদ একাউন্টে এর পিন টি পরিবর্তন করে নতুন পিন সেট করে নিতে পারবেন।

নগদ পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে করণীয়

অনেকেই আমরা আছি যারা নগদ পাসওয়ার্ড ভুলে যাই। তো এখন আপনাদেরকে খুব সহজে সংক্ষেপে এই নগদ পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে করণীয় সম্পর্কে বলা হবে।

নগদ পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে প্রথমে আগে হতাশ হওয়া যাবে না এবং ভুল পাসওয়ার্ড দিয়ে নগদ একাউন্টে ঢোকার চেষ্টা করা যাবে না।

পাসওয়ার্ড ভুলে যাওয়ার সাথে সাথে আপনার সরাসরি নগদের কাস্টমার কেয়ারে কল দিতে হবে। নগদের কাস্টমার কেয়ার নাম্বার হলো ১৬১৬৭.

সেখানে কল দেওয়ার পর আপনি তাদেরকে জানাবেন যে আপনি নগদ একাউন্ট এর পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন। এরপর তারা আপনার থেকে আইডি কার্ডের নম্বর চাইবে এবং সর্বশেষ লেনদেন এর কিছু তথ্য চাইবে।

সমস্ত তথ্য তাদেরকে দেওয়া হয়ে গেলে যদি তথ্যগুলো ঠিক থাকে তাহলে তারা সরাসরি আপনাকে নতুন পিন সেট করে নেওয়ার মতো অপশন দিয়ে দিবে।

আপনি চাইলে এভাবেও আপনার নগদ একাউন্ট এর পাসওয়ার্ড ঠিক করতে পারবেন। অথবা আমরা উপরে যে নগদ একাউন্ট পিন রিসেট করার নিয়ম শিখিয়ে দিয়েছে সেই নিয়ম অবলম্বন করেও পাসওয়ার্ড ঠিক করে নিতে পারবেন।

পরিশেষে

আজকের এই পোস্টে আমরা নগদ একাউন্ট এর দুইটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করেছে। একটি হচ্ছে নগদ একাউন্টের এর পিন ভুলে গেলে করণীয় কি সে সম্পর্কে।

এছাড়াও এখানে নগদ একাউন্টের পিন পরিবর্তনের নিয়ম ও সুন্দরভাবে বলা হয়েছে। এই কাজগুলো করতে গিয়ে যদি কোন সমস্যার মধ্যে পড়ে যান, তাহলে অবশ্যই কমেন্ট জানাবেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *