১০০০ টাকা, ২০০০ টাকা ও ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট

আসসালামুয়ালাইকুম বিয়ে একটি পবিত্র সম্পর্ক। এই বিয়েতে দাওয়াত খাওয়ার সময় আমরা অনেকেই ১০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট নিয়ে যেতে চাই। আবার যাদের বাজেট একটু বেশি তারা ২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট নিয়ে যায়।

১০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট | ২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট | ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট

তবে অনেকেই আছে যারা এই টাকার মধ্যে কি গিফট নিয়ে যাবে সেই ধারণাটি পায় না। তো আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের সাথে ১০০০ টাকা ২০০০ টাকা এবং ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট কি দেওয়া যায় সে সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

আমরা এক এক করে সুন্দরভাবে এই টাকাগুলোর মধ্যে কি কি গিফট দেওয়া যেতে পারে সে সম্পর্কে সাবলীল ভাষায় আপনাদেরকে বুঝিয়ে দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করব।

১০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট

বর্তমানে বিয়েতে দেওয়ার জন্য ১ হাজার টাকার মধ্যে গিফট হচ্ছে একটি স্ট্যান্ডার্ড মানের গিফট। এই ১০০০ টাকার মধ্যে আমরা চাইলে অনেক কিছুই দিতে পারি। তবে হ্যাঁ এখানে গিফট দেওয়ার ক্ষেত্রে নির্ভর করছে আপনি কোন পক্ষকে গিফট দিচ্ছেন অর্থাৎ পাত্রপক্ষ নাকি পাত্রীপক্ষ।

যে পক্ষকেই দেন না কেন আমাদের নিচে দেওয়া গিফট এর আইটেম গুলো সম্পর্কে ধারণা নিয়ে আপনি চাইলে যে কোন পক্ষকে এই গিফট গুলো সুন্দরভাবে প্রদান করতে পারেন।

ক্যাশ টাকা প্রদান

বর্তমান যুগে ১০০০ টাকা বিয়েতে গিফট দেওয়ার মতো একটি সুন্দর অ্যামাউন্টের টাকা। যদি আপনি ছেলে পক্ষের বাড়িতে বিয়ে খেতে যান তাহলে বুদ্ধিমানের কাজ হবে এই নগদ এক হাজার টাকা সেখানে প্রদান করে আসা।

এর কারণ হলো বিয়েতে প্রয়োজনীয় সকল জিনিসপত্র মেয়ের বাড়ি থেকে পাঠানো হয় এ কারণে ছেলের বাড়িতে কোন গিফট না দিয়ে টাকা প্রদান করাটাই উত্তম হবে।

আবার অনেক সময় দেখা যায় বিয়েতে যে সমস্ত গিফট কেনা হয় সেগুলো আগে থেকেই অন্য কেউ দিয়ে গেছে এই কারণে আপনার জিনিসটি তখন বেশি হয়ে যায়। এছাড়াও গিফটের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা থাকে। এই কারণে ক্যাশ টাকা দেওয়াটা একটু ভালো হয়।

তাছাড়া অনেক সময় দেখা যায় আপনি যে গিফটটি সেখানে দিবেন সেটা তো তাদের পছন্দ নাও হতে পারে বা এটা কোন কাজে না আসে তাহলে আপনার দেওয়া গিফট এর মূল্য থাকলো না।

নাকের ফুল

বর্তমানে ১ হাজার টাকার মধ্যে অনেক সুন্দর মানের ডায়মন্ড এর নাকের ফুল পাওয়া যায়। যদি আপনি পছন্দমত সুন্দর একটি নাকের ফুল কনে কে উপহার দিতে পারেন তাহলে সে অনেক বেশি খুশি হবে।

এছাড়াও আপনারা চাইলে আরো কিছু টাকা বাড়িয়ে আরও উন্নত মানের নাকের ফুল গিফট দিতে পারেন। তবে হ্যাঁ নাকের ফুল কিন্তু এক হাজার টাকার কমেও পাওয়া যায় এই কারণে আপনার ভালোভাবে যাচাই করে জিনিসটি করা করবেন।

চাইলে ডায়মন্ডের নাকের ফুল দিতে পারেন। আবার চাইলে স্বর্ণের নাকের ফুল ও দিতে পারেন আপনার যেটা পছন্দ হবে এবং যে ডিজাইনটি বেশি আপনার ভালো লাগবে সেটি গিফট হিসেবে প্রদান করবেন।

অন্যান্য স্বর্নালংকার

বিয়েতে দেওয়ার একদম উপযুক্ত গিফট হচ্ছে ভালো স্বর্ণালঙ্কার গিফট করা। অনেক ধরনের স্বর্ণের অলংকার পাওয়া যায় এর মধ্যে থেকে সঠিক এবং বেস্ট কোয়ালিটি বাছাই করে আপনাকে প্রদান করতে হবে।

১০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট দিতে চাইলে আপনারা বিভিন্ন ধরনের স্বর্ণের অলংকার গুলো বাছাই করতে পারেন। তবে এখানে অবশ্যই আপনার বাজেটের কথা মাথায় রাখতে হবে যেহেতু আপনার বাজেট এক হাজার টাকার মধ্যে এই কারণে অবশ্যই এমন স্বর্ণের অলংকার বাছাই করবেন যেটার বাজেট ১০০০ টাকার মধ্যেই রয়েছে।

এখানে আপনারা কনে কে স্বর্ণের উপর গিফট করতে পারেন এছাড়াও নাকের ফুল কানের দুল সহ স্বর্ণের গলার হার ও গিফট করা যেতে পারে।

সরবত সেট উপহার

১০০০ টাকার বিয়ের গিফট এর মধ্যে আপনারা চাইলে শরবত সেট গিফট করতে পারেন বিয়ের মধ্যে। এই শরবত সেট এর মধ্যে বেশ কয়েকটি কাঁচের গ্লাস থাকে সুন্দর এবং চমৎকার দেখতে।

তবে হ্যাঁ গ্লাসের কোয়ালিটির উপর ভিত্তি করে দামটি আরো বেশি কিংবা কম হতে পারে। কিন্তু যেহেতু আপনার বাজেট ১ হাজার টাকার মধ্যে এই কারণে এই বাজেটের মধ্যে যে সেটটি আপনার বেশি পছন্দ হবে এবং আপনার কাছে বেশি কোয়ালিটিফুল মনে হবে সেটা ক্রয় করে এনে গিফট করবেন।

গ্রুপ উপহার

অনেকেই হয়তো এই গ্রুপ উপহার কথাটি বুঝতেছেন না। এখানে বলা রাখা ভালো গ্রুপ উপহার মানে হচ্ছে অনেকে মিলে একসাথে টাকা দিয়ে একটি বড় গিফট দেওয়া। অর্থাৎ যদি আপনি আপনার কোন বন্ধুর বিয়েতে দাওয়াত খেতে যান তাহলে এখানে অবশ্যই আরো অন্যান্য বন্ধুরা যাবেন।

আপনার যত বন্ধু আছে সবাই মিলে যদি 1000 টাকা করে দেন তাহলে কিন্তু এখানে অনেকগুলো টাকা উঠে যাবে। এই টাকাগুলো একসাথে মিলে আপনারা চাইলে আপনার বন্ধুকে অনেক বড় একটি গিফট দিতে পারবেন। এখানে আপনার বন্ধুর পরিমাণ যত বেশি হবে টাকার পরিমাণ তত বেশি হবে।

আর যত বেশি টাকার এমাউন্ট দিয়ে গিফট প্রদান করতে পারবেন তত বড় এবং ভালো গিফট দিতে পারবেন বিয়েতে। তবে হ্যাঁ অবশ্যই গিফট দেওয়ার আগে যাকে গিফট দিচ্ছেন তার থেকে জেনে নিবেন যে তার প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কি তাহলে গিফট বাছাই করতে খুব সুবিধা হবে।

বিছানা সাজানোর আসবাবপত্র

এখানে আপনারা ১০০০ টাকার মধ্যে চাইলে বিছানা সাজাতে যে সমস্ত আসবাবপত্র প্রয়োজন হয় সেগুলো উপহার হিসেবে দিতে পারেন। এখানে বিছানা সাজানোর আসবাব পত্রের মধ্যে পড়ে বালিশ এবং বিছানার চাদর । আর ১০০০ টাকার মধ্যে এই দুটো জিনিস অবশ্যই হয়ে যাবে।

এখানে অবশ্যই আপনাকে দুটো বালিশ উপহার দিতে হবে এবং একটি সুন্দর দেখে বিছানার চাদর দিতে হবে। যদি আপনার বাজেট হয়ে থাকে তাহলে সাথে চাইলে মশারি যুক্ত করতে পারেন কিংবা তোষক ও যুক্ত করা যেতে পারে।

প্রেসার কুকার

মহিলাদের রান্না করার জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস আছে প্রেসার কুকার। এই প্রেসার কুকার ব্যবহারের ফলে রান্না করার সময় অনেকটা কমিয়ে আসে এবং সহজ হয়ে যায়। কারণে মহিলাদের একটি প্রেসার কুকার থাকলে রান্না করতে অনেক বেশি সুবিধা হয়।

তো আপনারা এই এক হাজার টাকার মধ্যে কিন্তু অনেক ধরনের প্রেসার কুকার পাবেন ভালো ভালো মানের। এখানে প্রেসার কুকার এর বিভিন্ন মাপ রয়েছে ছোট এবং বড় হিসাবে। তাই এই উপহারটি কেনার আগে অবশ্যই এই প্রেসার কুকারের দাগ গুলো ভালোভাবে জেনে নিবেন অনলাইন থেকে।

এরপর আপনার বাজেটের মধ্যে যে সাইজের প্রেসার কুকারটি কিনতে পারবেন সেটি ক্রয় করে উপহার হিসেবে প্রদান করবেন। তাহলে আশা করি ১০০০ টাকার মধ্যেই আপনার বিয়ের গিফটটি করে ফেলতে পারবেন।

২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট

বর্তমান যুগে দুই হাজার টাকা কিন্তু খুব কম না আবার খুব বেশি ও না। তবে হ্যাঁ ২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট গুলো আপনাকে জেনে রাখতে হবে তাহলে গিফট দিতে সুবিধা হবে। এখানে ২০০০ টাকার মধ্যে বর্তমানে বিয়েতে দেওয়ার জন্য অসংখ্য গিফট পাওয়া যায়।

২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট গুলো থেকে আপনাকে অবশ্যই সেরা গিফটটি বাছাই করে এরপর প্রদান করতে হবে। এখানে আপনারা অনেক ধরনের গিফট দিতে পারবেন এই টাকার মধ্যে। নিচে বেশ কিছু গিফট এর কথা আলোচনা করা হলো।

স্বর্ণের চেইন উপহার দেওয়া

আপনারা অবশ্যই জানেন যে মেয়ে মানুষ স্বর্ণের জিনিস কত বেশি পছন্দ করে। আর এই ২০০০ টাকার মধ্যে অনেক ধরনের ভালো ভালো স্বর্ণের চেইন পাওয়া যায়। কিন্তু হ্যাঁ আপনাকে অবশ্যই সঠিক ডিজাইনটি সিলেক্ট করতে হবে।

এর কারণ হচ্ছে স্বর্ণের চেইন এর মধ্যে অনেক ধরনের ডিজাইন এর পার্থক্য রয়েছে। এখানে যে ডিজাইনটি বেশি ভালো লাগবে সেটা উপহার দেওয়ার চেষ্টা করবেন। কিন্তু হ্যাঁ স্বর্ণ যেহেতু অনেক মূল্যবান এবং দামি একটি ধাতু এই কারণে অবশ্যই চেইন নেওয়ার আগে অবশ্যই যাচাই করবেন যে আপনাকে দেওয়া চেইন টি আসলেই স্বর্ণের কিনা।

বিয়ের খাট উপহার

বিয়েতে চাইলে খাট উপহার দেওয়া যেতে পারে এই ২০০০ টাকার বিয়ের গিফটের মধ্যে। খাট অনেক প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। এই কারণে যদি আপনি এই উপহারটি প্রদান করতে পারেন তাহলে অনেক বেশি ভালো হবে এবং বিয়ের পক্ষের মানুষ ও পছন্দ করবে।

চাইলে এখানে আপনি স্টিলের খাট উপহার দিতে পারেন এছাড়াও কাঠের খাট ও উপহার দেওয়া যেতে পারে। তবে হ্যাঁ অবশ্যই খাটের ডিজাইনটি ভালোভাবে যাচাই করে নিবেন এবং যে কাঠ দিয়ে খাট বানানো হয়েছে সেই কাঠ টি সঠিকভাবে যাচাই করবেন।

ডিনার সেট

বিয়েতে দেওয়া গিফট গুলোর মধ্যে এই ডিনার সেট অনেক জনপ্রিয় এবং কমন একটি গিফট। কিন্তু যদি আপনি সঠিক এবং ভালো মানের ডিনার সেট উপহার দিতে পারেন তাহলে সেটাই হবে আপনার জন্য সেরা একটি গিফট। এখানে অবশ্যই আপনি নিজে সরাসরি দোকানে গিয়ে ডিনার সেট দেখে তারপর ক্রয় করার চেষ্টা করবেন।

এর প্রধান কারণ হচ্ছে অনেক ধরনের ডিনার সেট রয়েছে যেগুলোতে বিভিন্ন আইটেম কম দেওয়া থাকে এবং মানেও বেশি একটা ভালো হয় না। আপনি অবশ্যই ডিনার সেট নেওয়ার আগে চেক করবেন যে সেখানে যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র গুলো আছে কিনা।

গ্যাসের চুলা উপহার

যদি আপনার বাজেট ২০০০ টাকার মধ্যে হয় তাহলে এই বাজেটের মধ্যে আপনি অনেক ধরনের গ্যাসের চুলা পেয়ে যাবেন যেটা বিয়েতে দেওয়ার জন্য অনেক সেরা একটি গিফট। এর কারণ হচ্ছে বিয়ের পর যেহেতু নতুন একটি সংসার শুরু হবে অবশ্যই সেখানে রান্নাবান্নার কাজ প্রতিনিয়তই করা হবে।

কিন্তু হ্যাঁ যদি আপনি ভালো মানের ডাবল গ্যাসের চুলা নিতে চান , তাহলে কিন্তু দুই হাজার টাকার মধ্যে হবে না । কিন্তু ২০০০ টাকার মধ্যে আপনি বেশ কিছু ব্র্যান্ডের সিঙ্গেল ভালো মানের গ্যাসের চুলা পাবেন । আপনি চাইলে সেই গ্যাসের চুলা গুলো তাদেরকে উপহার দিতে পারেন।

রাইস কুকার

বর্তমানে দেশে অনেক ধরনের রাইস কুকার পাওয়া যায় যেগুলোর দাম দুই হাজার টাকার আশেপাশে। আর এখন যেহেতু পুরো দেশে কারেন্ট রয়েছে এই কারণে আশা করি আপনি যাকে গিফট দিবেন তার বাড়িতে কারেন্ট আছে এবং সে এই রাইস কুকার ব্যবহার করতে পারবে।

ভাত রান্না করার জন্য সেরা এবং নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস এই রাইস কুকার। এই কারণে আপনারা চেষ্টা করবেন বিয়েতে একটি রাইস কুকার নিয়ে যাওয়ার তাহলে বর এবং কণে দুজনেই অনেক বেশি খুশি হবে। কিন্তু হ্যাঁ ভালো মানের রাইস কুকার অবশ্যই আপনাকে চিনতে হবে এবং সেই ভালো মানের গিফট টি ক্রয় করতে হবে।

৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট

৫০০ টাকা এমাউন্ট টি শুনতে অনেক কম মনে হলেও যারা মধ্যবিত্ত ফ্যামিলি আছে তাদের কাছে এটিই অনেক বেশি একটি টাকা। যাদের টাকা-পয়সা একটু কম তারা বিয়েতে ৫০০ টাকার মধ্যে গিফট দিতে চায়। তো তাদের জন্য এখন আমরা বেশ কিছু ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট নিয়ে আলোচনা করব ।

তবে হ্যাঁ ৫০০ টাকা অ্যামাউন্ট টি যেহেতু খুব বেশি বড় নয় এ কারণে আপনারা চেষ্টা করবেন এই টাকাটি সরাসরি ক্যাশ টাকা হিসেবে উপহার দেওয়ার। কারণ এই টাকার মধ্যে যে সমস্ত উপহার কিনতে পাওয়া যাবে এগুলো খুব বেশি একটা মানসম্মত হবে না। এরপরেও নিচে আমরা বেশ কিছু বাছাই করে সুন্দরভাবে ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট গুলো তুলে ধরলাম।

হটপট উপহার

শীতের দিনে ভাত গরম রাখার জন্য অনেক প্রয়োজনীয় প্রোডাক্ট হচ্ছে এই হটপট। আর শীতের দিনে এই হটপট থাকাটা অনেক জরুরি একটি বিষয়। যদি আপনারা শীতের দিনে কোন বিয়ে খেতে যান এবং আপনার বাজেট হয়ে থাকে ৫০০ টাকার মধ্যে তাহলে চাইলে একটি হট নিয়ে যেতে পারেন।

এখানে বিভিন্ন লিটার পরিমাণে হটপট পাওয়া যায়। তবে এই ৫০০ টাকার মধ্যে আপনারা ১৭ লিটার এবং ২৫ লিটার এর বিভিন্ন কোম্পানির হটপট পাবেন। এগুলোর মধ্যে আপনার যেটা পছন্দ হবে সেই হটপটটি ক্রয় করে নিয়ে বিয়েতে গিফট করার চেষ্টা করবেন।

সিসার গাবলা উপহার

সীসার গবলা অনেক প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। আপনারা ৫০০ টাকার মধ্যে এই উপহারটি পেয়ে যাবেন বিভিন্ন দোকানে। যেহেতু সংসার জীবনে এই প্রডাক্ট টি অনেক গুরুত্বপূর্ণ এই কারণে যাকে উপহারটি দিবেন তারাও অনেক কাজে লাগবে এই জিনিসটি।

কিন্তু হ্যাঁ এই হাবলা ক্রয় করার সময় অবশ্যই ভালো মানের এবং গাবলা ক্রয় করার চেষ্ঠা করবেন। তাহলে আপনি গিফট টি অনেক মানসম্মত হবে এবং খুব সুন্দর ভাবে উপহার দিতে পারবেন।

পরিশেষে

আজকের পোষ্টের মধ্যে আমরা আপনাদের সাথে ১০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট সহ ২০০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট এবং ৫০০ টাকার মধ্যে বিয়ের গিফট নিয়ে আলোচনা করেছি। এই পোষ্টের মধ্যে আপনাদেরকে বেশ কিছু গিফটের আইডিয়া দেওয়া হয়েছে।

এগুলো যদি আপনাদের পছন্দ না হয় তাহলে চাইলে আপনারা নিজেদের পছন্দ মতো এবং আপনাদের বাজেটের মধ্যে যেকোনো গিফট দিতে পারেন। তবে হ্যাঁ অবশ্যই গিফট দেওয়ার আগে জেনে নিবেন যে সেই জিনিসটি তাদের আদৌ কোন প্রয়োজন আছে কিনা।

তাদের প্রয়োজন আছে এমন গিফট দিতে পারলে খুব বেশি ভালো হয়। এছাড়াও যদি এটা একদম না বোঝেন যে কি দিবেন তাহলে সরাসরি ক্যাশ টাকা উপহার দেওয়া যেতে পারে । আশা করি আজকের পোষ্টের মধ্যে দেওয়া ১০০০ টাকার মধ্যে গিফট এর আইডিয়া গুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। আর হ্যাঁ এইগুলোর মধ্যে কোন গিফট আপনার বেশি ভালো লেগেছে সেটা চাইলে কমেন্টে জানাতে পারেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *