বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখ (বই কেনার জন্য)

আসসালামু আলাইকুম, বিভিন্ন কারণে আমাদের পিতার কাছে পত্র লেখার প্রয়োজন হতে পারে। এছাড়াও পরীক্ষার মধ্যেও বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লিখন আসতে পারে। তবে এই টাকাটা বিভিন্ন কারণে চাওয়া হতে পারে।

হতে পারে বই কেনার জন্য টাকা চেয়ে পত্র লিখতে বলা হয়েছে এছাড়াও অন্যান্য কারণেও টাকা চেয়ে পত্র লেখা পরীক্ষায় আসতে পারে। প্রতিটা বিষয়ই আজকের পোষ্টের মধ্যে শিখিয়ে দেওয়া হবে আপনাদেরকে।

বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখ

যদি পরীক্ষার মধ্যে শুধুমাত্র এটা লেখা থাকে যে, “বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখ” তাহলে এখানে কোন কারণ উল্লেখ করতে হবে না।

শুধুমাত্র সংক্ষেপে টাকা চেয়ে পিতার কাছে একটি পত্র লিখলেই পুরোপুরি নাম্বার পাওয়া সম্ভব হবে। তবে হ্যাঁ যদি এখানে টাকা চাওয়ার কোন একটি কারণ এর কথা বলে দেওয়া হয় তাহলে কিন্তু অবশ্যই সেই কারণ উল্লেখ করেই পুরো পত্রটিকে লিখতে হবে।

তো আমরা এখানে কোন কারণ উল্লেখ করা ছাড়াই শুধুমাত্র বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র কিভাবে লেখা যায় সেটা দেখিয়ে দেবো এবং তারপরে বিভিন্ন কারণ এর কথা উল্লেখ করে সেগুলো নিয়েও পত্র লিখে দেওয়া হবে।

তারিখ: ০৪/০১/২০২৪
ধানমন্ডি , ঢাকা

বরাবর,

প্রিয় বাবা
আসসালামু আলাইকুম আশা করি আপনি ভালো আছেন। আমার মা এবং ছোট ভাই কেউ আমার সালাম জানিয়ে দিবেন। আশা করছি তারাও ভালো আছেন।

বর্তমানে দ্রব্যমূল্যের দাম এত বেশি হয়েছে যে কোন কাজ করতে গেলে শুধুমাত্র বেশি পরিমাণে টাকার প্রয়োজন পড়ে। যার কারণে আগে আমার যে টাকা দিয়ে পুরো মাস চলত এখন সেই টাকা দিয়ে আর পুরো মাস চলে না।

এরপরেও আমি খরচ করা অনেক কমিয়ে দিয়েছি। এখন আমার প্রয়োজন ছাড়া অতিরিক্ত কোন টাকা খরচ করি না। তারপরেও মাস শেষ হওয়ার বেশ কয়েকদিন আগেই আমার কাছে থাকা সমস্ত টাকা ফুরিয়ে গেছে।

আমি জানি আপনার ও বর্তমানে টাকার অনেক সমস্যা চলছে। কিন্তু বাবা আমি টাকা ছাড়া এখন কোনভাবেই আর চলতে পারছি না। আমার বেশ কিছু কারণ এ বর্তমানে থাকার খুবই দরকার।

আমার আগামী সপ্তাহের মধ্যে দশ হাজার টাকা লাগবে। আশা করি আপনি খুব দ্রুত আমাকে টাকা দিয়ে পাঠিয়ে দেবেন। আমি চেষ্টা করব এই টাকা গুলোকে অযথা খরচ না করে শুধুমাত্র যেটা খরচ না করলেই নয় শুধুমাত্র সেটাই খরচ করব।

একবারে টাকাগুলো পাঠাতে না পারলেও আমাকে অবশ্যই পাঁচ হাজার টাকার মত এখন পাঠিয়ে দিতে হবে না হলে আমার চলা খুব কষ্ট হয়ে যাবে। পরে বাকি ৫০০০ টাকা দিলে আমার কাজ হয়ে যাবে।

আপনারা বাড়ির সবাই কেমন আছেন আমার ছোট ভাই ও মা কেমন আছে সেটা অবশ্যই এই চিঠির উত্তরে জানিয়ে দিবেন। আপনিও ভালো থাকবেন এবং শরীরের যত্ন নিবেন।

ইতি
আপনার প্রিয় সন্তান

ডাকটিকিট

প্রেরক
নাম: অমুক মিয়া
ঠিকানা: ধানমন্ডি , ঢাকা।

প্রাপক
নাম: মোহাম্মদ তাকরিম হাসান
ঠিকানা: খুলনা দিঘলিয়া।

_________

উপরের অংশ থেকে মূলত চিঠি লেখার স্থানটি শেষ হয়েছে । এভাবে পরীক্ষার মধ্যে দিলে আশা করি ভালো নাম্বার তোলা যাবে। তবে এই চিঠির মধ্যে বেশ কিছু জায়গায় ইনফরমেশন গুলো উল্লেখ করার সময় কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানতে হবে।

বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়

এই ধরনের ব্যক্তিগত পত্রের ক্ষেত্রে মোট ছয়টি অংশ থাকে। আর এই প্রতিটি অংশ অবশ্যই পত্রের মধ্যে সঠিকভাবে উল্লেখ করতে হবে এবং সেখানে সঠিক ইনফরমেশন দিতে হবে।

তো আপনারা এই অংশগুলোর মধ্যে কোন অংশে কিভাবে ইনফরমেশন গুলো ঠিকঠাক ভাবে বসাবেন তার বর্ণনাগুলো নিচে পয়েন্ট আকারে উল্লেখ করা হলো।

✓ উপরে তারিখ এর জায়গায় অবশ্যই যেদিন লিখতেছেন সেই তারিখটি উল্লেখ করতে হবে।

✓ শুরুতে তারিখের সাথে যে ঠিকানাটি দেওয়া হয়েছে সেটি অবশ্যই নিজের ঠিকানা দিতে হবে অর্থাৎ যেখান থেকে চিঠি পাঠানো হবে সেই জায়গার ঠিকানা।

✓ তারপর বরাবরের জায়গায় আপনি আপনার পিতাকে সম্ভাষণ জানানোর জন্য একটি শব্দ ব্যবহার করতে পারেন।

✓ এরপর চিঠির বর্ণনাতে নিজের ইচ্ছামত সুন্দরভাবে কথাগুলো গুছিয়ে লিখে দিবেন ।

✓ এরপর সর্বশেষে ইতি এর জায়গায় আপনার পছন্দমত বেশ কয়েকটা শব্দ ব্যবহার করতে পারবেন।

✓ সর্বশেষে যে ডাকটিকিট অংশটি উল্লেখ করা হয়েছে এটি কিন্তু বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এই অংশের মধ্যে অবশ্যই নিজের ঠিকানা এবং যেখানে পাঠানো হবে সেই ঠিকানাটি সুন্দরভাবে উল্লেখ করতে হবে।

✓ ডাক টিকিট এর দুটি অংশে থাকে একটি হচ্ছে প্রেরক এবং অন্যটি হচ্ছে প্রাপক।

✓ প্রেরক এর জায়গায় সেই সমস্ত ইনফরমেশন উল্লেখ করতে হবে যেখান থেকে চিঠি পাঠানো হচ্ছে অর্থাৎ আপনার নিজের ইনফরমেশন। নাম এবং ঠিকানা।

✓ এরপর প্রাপক মানে হচ্ছে যেখানে পাঠানো হবে বা যেখান থেকে চিঠিটি গ্রহণ করা হবে। এই জায়গায় অবশ্যই আপনার পিতার ঠিকানা এবং নাম ঠিকভাবে উল্লেখ করতে হবে।

বই কেনার জন্য টাকা চেয়ে পিতার কাছে পত্র

উপরের পত্রটি এমন ভাবে লিখে দেওয়া হয়েছে যেখানে টাকা চাওয়ার ক্ষেত্রে কোন কারণ উল্লেখ করা হয়নি। কিন্তু যদি পরীক্ষায় আসে যে বই কেনার জন্য টাকা চেয়ে পিতার কাছে পত্র লিখ তখন কিন্তু আবার অন্যভাবে লিখতে হবে।

তো বই কেনার জন্য কিভাবে আপনার বাবার কাছে পত্র লিখবেন সেটা কিন্তু আপনাকে ভালোভাবে বুঝে নিতে হবে। প্রতিটি পয়েন্ট ঠিকই থাকবে শুধুমাত্র বর্ণনার ক্ষেত্রে একটু আলাদাভাবে বর্ণনাটি লিখতে হবে।

পত্র লেখ শুরু…

পিরোজপুর ,বরিশাল
তারিখ: ৫ই জানুয়ারি ২০২৪ ইং

বরাবর

প্রিয় আব্বু,
আসসালামু আলাইকুম আশা করি বাসার সবাই ভালো আছে। আম্মুকে এবং আমার ভাই ও বোনদেরকে আমার সালাম জানাবেন। আপনি জানেন যে গত সপ্তাহে আমার নতুন সেমিস্টারে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে।

এই সেমিস্টার পরিবর্তন হলে পুরাতন বইগুলো বাদ দিয়ে নতুন করে বই কিনতে হয়। আর আপনি গত মাসে আমাকে যে টাকা দিয়েছিলেন সেই টাকাটি ম্যাচের ভাড়া এবং খাওয়ার বিল দিতে শেষ হয়ে গেছে।

টাকাগুলো শেষ হওয়ার পরে আমি বেশ কষ্টের মধ্যেই এখানে রয়েছি। এখন যদি আপনি আমাকে নতুন টাকা না পাঠান তাহলে আমার বইগুলো কেনা হচ্ছে না।

এ কারণে আমার দ্রুত কিছু টাকার প্রয়োজন এই বই কেনার জন্য। যেহেতু সামনের সপ্তাহ থেকে নতুন ক্লাস শুরু হবে এই কারণে বইগুলো যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কিনতে হবে । আমি জানি, বাড়ির অর্থনৈতিক অবস্থা খুব বেশি ভালো নয়।

যার কারণে আমিও এখন আরো খুব বেশি টাকা খরচ করি না। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে আমার যে টাকা খরচ না করলে চলা সম্ভব না শুধুমাত্র সেই টাকাই খরচ করি।

কিন্তু আবার টাকা না পাঠালে নতুন বই গুলো কেনা আমার পক্ষে সম্ভব হচ্ছে না। যেহেতু সামনের সপ্তাহ থেকে আমার ক্লাস শুরু হবে এই কারণে দ্রুত কিছু টাকা পাঠিয়ে দিবেন ।

আমার মা এবং বড় বোনকে আমার সালাম জানাবেন। আপনি অবশ্যই নিজের শরীরের যত্ন নিবেন। আর এই চিঠির উত্তরে অবশ্যই বাড়ির যাবতীয় বিষয়গুলো জানিয়ে দিবেন আমাকে।

ইতি
আপনার বড় সন্তান

ডাক টিকিট

প্রেরক,
নাম: মোঃ আজিজুল হক
ঠিকানা: পিরোজপুর ,বরিশাল।

প্রাপক,
নাম; মোহাম্মদ তোফাজ্জল হোসেন
ঠিকানা: নীলফামারী, চট্টগ্রাম।

( এখানে ডাক টিকেট এর জায়গায় অবশ্যই নিজের তথ্য গুলো সঠিকভাবে বসাতে হবে।)

বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখ class 6

ষষ্ঠ শ্রেণির পরীক্ষাতে অনেক সময় এই বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র লেখ আসতে পারে। এই কারণে অবশ্যই যারা ষষ্ঠ শ্রেণীতে পরে তাদেরকে এই পত্রটি ভালোভাবে পড়তে হবে ও মনে রাখতে হবে।

তবে ক্লাস সিক্স এ পত্রটি আসলে খুব বেশি বড় করে লেখার দরকার নেই ছোট পরিসরে শুধুমাত্র মূল বিষয়টি লিখলে হয়ে যাবে।

খুলনা, দিঘলিয়া
তারিখ: ৬ই জানুয়ারি ২০২৪ ইং।

বরাবর

পিতা,
সালাম নিবেন আশা করি আপনি এবং বাড়ির সমস্ত সদস্য ভালো আছেন। আপনাকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানাই এবং আল্লাহর কাছে দোয়া করি নতুন বছর যেন আপনার অনেক ভালো কাটে।

কিছুদিন আগে আমি পঞ্চম শ্রেণী থেকে ষষ্ঠ শ্রেণীতে উঠেছি। সবার দোয়ায় আমি পঞ্চম শ্রেণীতে এ প্লাস পেয়েছি। সব সময় চেষ্টা করি ভালোভাবে পড়াশোনা করতে সাথে ভালো কিছু করতে পারি এবং পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পারি।

তবে যেহেতু আমার ক্লাস একধাপ উত্তীর্ণ হয়েছে এই কারণে আমার খরচের পরিমাণটাও বেড়ে গিয়েছে। নতুন ক্লাসে ওঠার পর আমার বেশ কিছু খরচ করতে হবে।

যেমন: বই কেনা, খাতা কলম কেনা, স্কুলের ড্রেস বানানো এবং টিউশনির ফি।

এই কারণে আমার বেশ কিছু টাকার প্রয়োজন অতি শীঘ্রই। আশা করি আপনি আমাকে আগামী সপ্তাহের মধ্যেই কিছু টাকা দিয়ে সাহায্য করবেন যাতে আমি আমার প্রয়োজনীয় খরচ গুলো করতে পারি।

বাড়ির সবাইকে আমার সালাম দিবেন এবং বাড়ির সবাইকে বলবেন তারা যেন তাদের শরীরের যত্ন ভালোভাবে নেয়। আর আপনিও অবশ্যই পরিবারের সদস্যদের প্রতি খেয়াল রাখবেন এবং আপনার নিজের শরীরের যত্ন নিবেন ।

ইতি
আপনার ছোট পুত্র

ডাক টিকিট

প্রেরক,
মো: নাজমুল আহসান
ঠিকানা: খুলনা, দিঘলিয়া

প্রাপক,
নাম: মো শামীম আকন্দ
ঠিকানা: দিনাজপুর, রংপুর।

পরিশেষে

কেউ যদি এই পোস্টটি সম্পন্ন শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পরে এবং তার পরীক্ষায় ভবিষ্যতে বাবার কাছে টাকা চেয়ে পত্র আসে তাহলে আশা করি এই পত্রটি লিখতে তার আর কোন সমস্যা হবে না।

পরীক্ষার প্রশ্নে অবশ্যই ভালোভাবে লক্ষ্য করতে হবে যে বাবার কাছে টাকা চাওয়ার কোন কারণ যথাযথভাবে উল্লেখ করা আছে কিনা। যদি কারণ উল্লেখ থাকে তাহলে অবশ্যই কারণটি সেখানে বর্ননা করে দিতে হবে।

এছাড়াও বাস্তব জীবনেও যদি কেউ টাকা চাওয়ার জন্য আপনার বাবার কাছে পত্র লিখতে চান তাহলেও এই পদ্ধতি অবলম্বন করে পত্র লিখতে পারেন। তবে বাস্তব জীবনে লিখতে গেলে অবশ্যই এখানে ঠিকানা গুলো সঠিকভাবে লিখতে হবে।

এরপরেও এই পত্র লিখার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা হলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন এবং পোস্ট টি শেয়ার করতে ভুলবেন না কেউ।

Leave a Comment